স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের বুস্টার ডোজ গ্রহন করার ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৫০ বছরে নামিয়ে আনা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে অনুমোদন দিয়েছেন। এখন থেকে ৫০ বছর বয়স থেকেই বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে। ফলে ৫০ বছর বয়সীরাও এখন থেকে বুস্টার ডোজ পাবেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী সোমবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা জানান। জাহিদ মালেক বলেন, আমরা বুস্টার ডোজ দিয়ে যাচ্ছি। বুস্টার ডোজ খুব বেশি লোককে দেয়া যায়নি। কারণ ৬ মাস সবার পূরণ হয়নি। এ পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখের মতো বুস্টার ডোজ দিতে পেরেছি। বুস্টার ডোজ গ্রহনের জন্য বয়স ধরা হয়েছিল ৬০ বছর। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ৫০ বছর বয়সীদেরকে এখন বুস্টার দেয়া হবে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন রয়েছে।

তিনি বলেন, টিকা নিলে মৃত্যুঝুঁকি কমে। কিন্তু সংক্রমণের ঝুঁকি কমে না। এ বিষয়টি মনে রাখতে হবে। এ পর্যন্ত সাড়ে ১৪ কোটি টিকা দিয়েছি। আমাদের টিকা যা হাতে আছে এবং যা পাবো তাতে আমাদের জনগণের যতো টিকা প্রয়োজন তার চেয়ে বেশিই আছে।

জাহিদ মালেক বলেন, ৫০ বছরে নামিয়ে এনে বুস্টার ডোজ দিলে প্রায় ৭০ লাখ মানুষকে বুস্টার ডোজ দিতে হবে। সেটা আমাদের জন্য কোনো অসুবিধা নয়। আমরা শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীদের প্রায় ১ কোটি ৭ লাখ টিকা দিয়ে ফেলেছি। আমাদের কাছে টিকা আছে ৯ কোটি ৩০ লাখ ডোজ। রেজিস্ট্রেশন যারা করেছেন তাদের অধিকাংশের টিকা দেওয়া হয়ে গেছে, খুব একটা বাকি নেই।

সূত্র : বাসস